মোদির মন্ত্রীসভা দেখে অবসাদে ভুগছেন নাসিরউদ্দিন শাহ!

এশিয়া ফিচার বিনোদন সময় সংবাদ সাম্প্রতিক
শেয়ার করুন

তৃতীয়বার ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। প্রাথমিকভাবে গঠিত হয়েছে মন্ত্রিসভাও। কিন্তু দেশের ইতিহাসে এই প্রথমবার মোদির মন্ত্রিসভায় নেই কোনও মুসলিম প্রতিনিধি।

মোদির মন্ত্রিসভায় গত ৯ জুন, রোববার শপথগ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ ৭২ জন মন্ত্রী। এই তালিকায় রয়েছে ৩০ জন পূর্ণমন্ত্রী, ৩৬ জন প্রতিমন্ত্রী এবং ৫ জন স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী। ১০ জুন, সোমবার প্রথম ক্যাবিনেট বৈঠকের পর প্রকাশ্যে এসেছে কে পেয়েছেন কোন মন্ত্রণালয়।

আর ভারতের সদ্য ঘোষিত এই মন্ত্রীসভা দেখে অনেকটাই অবসাদে ভুগছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা নাসিরউদ্দিন শাহ। অবসাদের কারণ একটাই, তা হলো মোদির মন্ত্রিসভায় মুসলিমদের প্রতি অনীহা!

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন নাসিরউদ্দিন শাহ। অভিনেতার কথায়, ‘মন্ত্রিসভা দেখেই বোঝা যায়, ওদের মনে মুসলিমদের প্রতি কতটা ঘৃণা রয়েছে। বিষয়টি অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ার মতোই। কিন্তু কোনও ভাবেই তা আমায় অবাক করেনি। মুসলিমদের প্রতি ঘৃণা অন্তরে, শিরায় শিরায়।’

এসময় তিনি প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতির একটি উক্তি উল্লেখ করে বলেন, ‘হামিদ আনসারি বলেছিলেন, দেশের মুসলিম নাগরিকদের মধ্যে এক ধরনের ভয় কাজ করে।
আমাদের বুঝতে হবে যে, একা হিন্দু বা একা মুসলিম কিছুই করতে পারবে। যা করার, আমাদের একসঙ্গে করতে হবে।’

মোদির মন্ত্রিসভায় পুরানো মন্ত্রীদের উপর আস্থা রাখার পাশাপাশি নতুন মুখদের দেওয়া হল গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। প্রথমবার মন্ত্রী হওয়া বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডাকে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিলেন নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংকে দেওয়া হল কৃষিমন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব।

স্বরাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা, অর্থ ও রেলের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় পুরনোদের হাতেই রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জানা গেছে, বাকি মন্ত্রণালয়গুলোর বেশিরভাগই পুরনোদের হাতে ছাড়ার ঝুঁকি নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *