ফরজানা মাহবুবা’র ডাইরি : কর্দোবা – পর্ব ৪

ছবিতে যা দেখতে পাচ্ছেন তা খুব সম্ভব, আমার জানা মতে, পৃথিবীতে একমাত্র কবর যেটা মাটির নীচে না, মাটির উপরে! স্পেইনে মুসলিমদের ইতিহাস ঘাঁটতে গিয়ে আমার কাছে সবচে’ শকিং, সবচে’ সারপ্রাইজিং লেগেছে স্পেইনে মুসলিমদের পতনের সাথে খ্রিষ্টোফার কলম্বাস এর আমেরিকা ‘আবিষ্কার’ এর ডাইরেক্ট লিঙ্ক! সোজা করে বলি- যদি মুহাম্মাদ দ্য টুয়েলফথ্ (যাকে স্প্যানিশরা কিং বোয়াবদিল বলে) […]

বিস্তারিত পড়ুন

ফরজানা মাহবুবা’র ডাইরি : কর্দোবা – পর্ব ৩

আলহামরাকে ইংলিশে দেখলাম এখানে সবজায়গায় লেখা বা ওরা বলে Alhambra. প্রশ্ন হলো কেনো এই প্রাসাদকে আরবীতে আলহামরাঃ الْحَمْرَاء বলে? ইতিহাস ঘাঁটলে অনেকগুলো মত পাবেন, তারমধ্যে দুইটা প্রসিদ্ধ: এক- একজন রাজার নাম ছিলো, দুই – প্যালেস কমপ্লেক্সের নামই ছিলো ক্বালা আল হামরা (লাল প্রাসাদ)। আমি শিউর হতে পারছিলাম না, কোনটা ঠিক। তারপর উত্তরটা পেয়ে গেছি একদম […]

বিস্তারিত পড়ুন

ফরজানা মাহবুবা’র ডাইরি : কর্দোবা – পর্ব ২

স্পেইন নিয়ে পড়ালেখা করার সময় একদিন উত্তেজিত হয়ে মেয়েদের বাবাকে বললাম, জানো? পৃথিবীর সবচে উঁচু মিনারত হচ্ছে সেভিয়্যা তে, ওখানে একসময় মুয়াজ্জিন ঘোড়া দিয়ে উঠতো আযান দিতে, এত উঁচু! মেয়েদের বাবা পুরাই কনফিউজড হয়ে বলেছিলো মিনারতে ঘোড়া নিয়ে উঠে আযান দিতো- এটা কেমন না? আমারো তখন মনে হয়েছিলো, তাইতো, মিনারতে কীভাবে ঘোড়া নিয়ে উঠবে?! তাছাড়া […]

বিস্তারিত পড়ুন

ফরজানা মাহবুবা’র ডাইরি : কর্দোবা – পর্ব ১

ইমানুয়েল নাম লোকটার। কর্দোবা মসজিদের ভিতরের গার্ড। আমাদের পরিচয়টা খুব বাজেভাবে শত্রুর মত শুরু হলেও যখন বিদায় নিচ্ছিলাম সে বার বার বলছিলো ‘স্যরি!’ ইন্টারনেটের সব কথা বিশ্বাস করতে হয়না- আমি আমার দুই মেয়েকে এই কথা হাজারবার বললেও, স্পেইন নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করতে গিয়ে কোথাও লেখা দেখেছিলাম কর্দোবা মসজিদের ভিতর মুসলিমরা চাইলে নামায পড়তে পারে। আমি মসজিদের […]

বিস্তারিত পড়ুন

বেলকনির গোলাপ ফুল এবং মায়ের হাতের পিঠা ।। আকবর হোসেন

শীত আসলে বিলেতে গাছের পাতা ঝরে। ফুল ফুটেনা, ভোমর আসেনা। সুভাষে সুশোভিত হয়না আশপাশ। সামারে আবার সব যেনো জীবন ফিরে পায়। কিন্তু আমাদের বেলকনির গোলাপ ফুলটি এখনো বেঁচে আছে। ঠান্ডা গেলো, ঝড় তুফান গেলো, তাতে কী! ছোট্ট গোলাপটি এখনো সজীব আছে, সুভাষ ছড়াচ্ছে। কী আশ্চর্য্য! আমি এই একটিমাত্র ফুলের সৌন্দর্যে ভীষণ মুগ্ধ। প্রায় প্রতিদিন দেখা […]

বিস্তারিত পড়ুন

আবু আলীর ভ্রমণবিষয়ক বই ‘প্যারিস থেকে হামবুর্গ’

সাংবাদিক আবু আলীর ভ্রমণবিষয়ক বই ‘প্যারিস থেকে হামবুর্গ’। বইটি শুধুই ভ্রমণবৃত্তান্ত নয়, আরও অনেক কিছু। এর পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠায় বিধৃত রয়েছে ইউরোপের তিনটি দেশের দর্শনীয় স্থানের ভ্রমণসংক্রান্ত চিত্তাকর্ষক তথ্য এবং সুচারু চিত্রাবলি। ‘প্যারিস থেকে হামবুর্গ’ গ্রন্থে লেখক ইউরোপের তিনটি দেশের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানের বিবরণ তুলে ধরেছেন, যা সংক্ষিপ্ত কিন্তু সুখপাঠ্য। যারা ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড এবং জার্মান ভ্রমণে […]

বিস্তারিত পড়ুন

আমাকে ক্ষমা করো প্রভু ।। আনোয়ার হোসেইন মঞ্জু

কনফারেন্স প্যালেস, জেদ্দা ১৩ অক্টোবর, ১৯৯০ আমার জেদ্দা সফরের আমন্ত্রণ আকস্মিক ছিল। তিনদিন আগে বিকেলে অফিসে এসে শুনলাম, কুয়েত দূতাবাস থেকে আমার পাসপোর্ট চেয়ে পাঠানো হয়েছে। একজনের হাতে পাসপোর্ট পাঠিয়ে দিয়ে সৌদি দূতাবাসের জনসংযোগ কর্মকর্তা শাহ আবদুল হালিমকে ফোন করলাম। তিনি জানালেন, জেদ্দায় কুয়েতিদের একটি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হচ্ছে, আমাকে সেখানে অ্যাটেন্ড করতে হবে। ঢাকার আরো […]

বিস্তারিত পড়ুন

ভারতের বিস্মৃত স্বাধীনতা সংগ্রামী মাওলানা আবুল কালাম আজাদ

লেখক: খুশবন্ত সিং অনুবাদ: আনোয়ার হোসেইন মঞ্জু ১৯৪৭ সালে ভারত বিভাজনের প্রাক্কালে লক্ষ লক্ষ মুসলিম তাদের বাড়িঘর, সম্পত্তি ত্যাগ করে পাকিস্তানে যেতে বাধ্য হচ্ছিল, হিন্দু-শিখ বনাম মুসলমানদের মধ্যে দাঙ্গায় যখন হাজার হাজার মানুষকে হত্যা করা হচ্ছিল এবং বাধ্য করা হচ্ছিল অসংখ্য মানুষকে শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় গ্রহণ করতে। মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, যিনি ধর্মের ভিত্তিতে ভারতকে […]

বিস্তারিত পড়ুন

ফারুকের ‘স্মৃতিতে হুমায়ূন আহমেদ’

শব্দের জাদুকর প্রয়াত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ এর স্মৃতি নিয়ে বই লিখেছেন বিশিষ্ট অভিনেতা ফারুক আহমেদ। প্রায় দুই যুগের বেশি সময় হুমায়ূন আহমেদের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে অনেক স্মৃতি জমে ছিল মনের কঠোরে। সেই স্মৃতিগুলোকে সবার মাঝে বিলিয়ে দিতে এবার বই আকারে তা প্রকাশ করেছেন ফারুক আহমেদ। বইটির নাম দিয়েছেন ‘স্মৃতিতে হুমায়ূন […]

বিস্তারিত পড়ুন

আমার স্কুল । আনোয়ার হোসেইন মঞ্জু

ছবি দুটো আমার স্কুলের। একটি আমার সময়ের প্রধান শিক্ষকের। স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ১৯১৯ সালে। ওই বছরই অবসান ঘটেছিল প্রথম বিশ্বযুদ্ধের। বিশ্ব শান্তির স্মারক হিসেবে শেরপুরের জমিদার গোবিন্দ কুমার চৌধুরী স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেন। স্কুলের প্রতিষ্ঠাকালীন নাম ছিল “গোবিন্দ কুমার পিস মেমোরিয়াল ইন্সটিটিউশন” সংক্ষেপে “জিকেপিএম ইন্সটিটিউশন” আমরা এবং এলাকার লোকজন আরও সংক্ষিপ্ত আকারে বলতাম “জিকে স্কুল।” স্কুলটির […]

বিস্তারিত পড়ুন